ধর্ষণ মামলা তুলে নিতে বাদীকে প্রাণনাশের হুমকী


দৈনিক প্রতিদিনের অপরাধ প্রকাশের সময় : অগাস্ট ৩১, ২০২১, ১০:০০ অপরাহ্ন / ১৫
ধর্ষণ মামলা তুলে নিতে বাদীকে প্রাণনাশের হুমকী

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ধর্ষণ মামলা তুলে নেবার জন্য আসামী পক্ষের আত্মীয়রা প্রাণনাশের হুমকী দিচ্ছে বাদী ও তার পরিবারকে। বাদী প্রাণভয়ে আত্নগোপন করেছেন বলে জানা গেছে। জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে মঙ্গলবার বাদীর ভাসুর কুমারখালী থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

বাদীর ভাসুর বকুল খান জানান, গত ১৫ আগষ্ট তার ছোট ভাইয়ের স্ত্রী প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাইরে বের হলে জগন্নাথপুর ইউনিয়নের দয়ারামপুর গ্রামের বক্কার সর্দারের ছেলে জুয়েল তার ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষন করে। এসময় তার ছোটভাই বাইরে বের হলে জুয়েল দৌড়ে পালিয়ে যায়। বিষয়টি কোনভাবে মেনে নিতে না পেরে তার ছোট ভাই বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরবর্তীতে ২৪ আগষ্ট তার ছোট ভাইয়ের স্ত্রী বাদী হয়ে কুমারখালী থানায় ধর্ষণ মামলা করে। কিন্তু মামলা করার পর থেকে জুয়েলের পরিবার তাদের বিভিন্ন ধরনের হুমকি সহ নানা ধরনের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে। তিনি বলেন সোমবার সকালে তার ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে বাড়ির সামনে থেকে জুয়েলের আত্মীয় মতিন, রিয়াজ সর্দার ও রাজিব সর্দার অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ এবং মামলা তুলে না নিলে তাকে ও তার পরিবারের সবাইকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকী দেয়। যেকারণে গতকাল থেকে তার ছোট ভাইয়ের স্ত্রী আত্নগোপন করেছে। বকুল খান আরো জানান তারা পরিবারের সবাই প্রচন্ড নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। যেকারণে তিনি জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে কুমারখালীতে থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

এ বিষয়ে কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, বাদী ও তার পরিবারকে ধর্ষণ মামলা তুলে নেবার জন্য আসামির পরিবার থেকে হুমকী দেয়া হচ্ছে মর্মে সাধারণ ডায়েরি করেছেন বাদীর ভাসুর।