একটি সূতায় গাথা – রহিমা নিসাত নিঝুম


দৈনিক প্রতিদিনের অপরাধ প্রকাশের সময় : এপ্রিল ৬, ২০২১, ৩:৪১ অপরাহ্ন / ৬৮৬৫৩
একটি সূতায় গাথা – রহিমা নিসাত নিঝুম

একটি সূতায় গাথা

লেখা : রহিমা নিসাত নিঝুম


আমি জম্মেছি বঙ্গমাতার কোলে,
যে কোলে ভিন্নজাতের একই ফুল দোলে।
রাত্রি শেষে ঐ শোনা যায় মুয়াজ্জিনের আজান,
ঘন্টার মধুর ধ্বনিতে পূজার আহ্বান।
প্যাগোডাতে ত্রিপিটকের বাজছে সুরেলা বাণী,
গীর্জায় ঐ শোনা যায় ফাদারের উপদেশ খানি।
মন্দির, মসজিদ, গীর্জা ও প্যাগোডায়
আজানের ধ্বনি মিশে গেছে দেখো মন্দিরের ঘন্টায়।
যে ফুল ফোটে মুসলমানের বাড়ির আঙিনায়,
সে ফুল পরে দেবতার পায়ে, সে ফুল গাথেঁ খোঁপায়।
কাকিমা খুব ভোরে জল ঢালে তুলসীর মূলে,
আব্দুর রহিমের ঠান্ডা লেগেছে
ঠাকুমা দিলো তুলসির পাতা তুলে।
রোজা রেখে ইফতার করে গীর্জার সামনে বসে,
নামাযটাও পড়লো দেখি বৌদ্ধের তক্তপোষে।
এক সাথে চলি আমরা এক সাথে বাচিঁ,
একই জলে স্নান করে হই শুদ্ধ শূচি।
আল কোরআনের মধুর ধ্বনি হৃদয়ে ধারণ করে,
বুদ্ধদেবের শুদ্ধ বাণী পড়ি উচ্চস্বরে।
একই সাথে নিদ্রা যাই একই সাথে আহার,
ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে মিলেমিশে একাকার।
দাওয়াত দিলাম আমার বাড়ি, নিমন্ত্রণ টা দিও,
হেসে খেলে জীবন সাজাই এই দেশটা আমাদের।
মোহাম্মদের (সাঃ) আদর্শ বুকে ধারণ করেছি,
রাধাকৃষ্ণের প্রেমকাব্য কত শত বার পড়েছি।
সম্প্রীতির এই বন্ধনে বেধেছি মোদের প্রান,
এই শান্তির স্থায়ী ঠিকানায় রইলো তোমায় আমন্ত্রন।
ধন্য আমি জন্মেছিযে এই বঙ্গমাতায়,
এক সূত্রে হাজার ফুল গেঁথেছে এক মালায়।