কুমারখালীর চাপড়া ইউনিয়ন ৮ম শ্রেণীর ছাত্রীকে জোর পুর্বোক ধর্ষণ অভিযোগ


দৈনিক প্রতিদিনের অপরাধ প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০, ৮:৩৫ অপরাহ্ন / ২২১
কুমারখালীর চাপড়া ইউনিয়ন ৮ম শ্রেণীর ছাত্রীকে জোর পুর্বোক ধর্ষণ অভিযোগ

শামিম হাসান খানঃ কুমারখালীর চাপড়া ইউনিয়নের সাঁওতা গ্রামের কারিগর পাড়ায় গত ১৪/০৯/২০২০ দুপুরে আনুমানিক ১২/৩০মিনিটে মোঃ রোকনের মেয়ে শর্মিলা (১৪) ৮ম শ্রেণীর ছাত্রীকে, একই ইউনিয়নের গাংকুল পাড়ার মাছুদের ছেলে মমিন (২৪) জোর করে ধর্ষন করে বলে অভিযোগ করেছে প্রত্যক্ষদর্শী বড় বোন উর্মিলা। সাংবাদিকদের কাছে উর্মিলা জানান গতকাল আনুমানিক দুপুর ১২ টার দিকে দুই বোন পাশের বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলাম আমার মোবাইল ফোন টি বাসায় রেখে আসায় আমার ছোট বোনকে আনতে বলি। ছোটো বোনের দেরি দেখে আমি ও আমার বান্ধবী কুলছুম আমাদের বাড়িতে আসি বান্ধবীকে বাহিরে রেখে আমি ঘরে ঢুকে দেখি আমার ছোট বোন বিছানায় বিবস্ত্র অবস্থায় কান্নাকাটি করছে আর মমিন আমার ছোট বোনকে হুমকি দিচ্ছে কাউকে না বলার জন্য আমাকে দেখে মমিন দ্রুত ঘর থেকে বের হয়ে পালিয়ে যায় তখন আমার ছোট বোনের কাছে কি হয়েছে জানতে চাইলে আমার ছোট বোন আমাকে জানান আমি মোবাইল নিতে ঘরে ঢুকলে মমিন আমাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে আমি চিৎকার করতে গেলে আমার মুখ চেপে ধরে এবং বলে আমি চিৎকার করলে আমায় গলাটিপে মেরে ফেলবে তার পরে আমাকে পাশবিক নির্যাতন করে। এ ব্যপারে মঙ্গলবার সকালে কুমারখালী থানায় এক‌টি মামলা করা হয়েছে মামলা নং১৩ এ বেপারে কুমারখালী থানার অফিসার ইনচাজ মজিবুর রহমান জানান অভিযোগের ভিত্তিতে তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে ধর্ষণের আলামত জব্দ করা হয়েছে এবং মেয়েটিকে কুষ্টিয়া মেডিকেল চেকআপ করানো হয়েছে ধর্ষককে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে । সাংবাদিকদের একটি টিম ঘটনাস্থলে গেলে মমিনের পরিবারের কাউকে পাওয়া যায়নি এলাকা বাসিকে তাদের ব্যপারে জানতে চাইলে কিছু বলতে পারেনা। মেয়ের পরিবার ও তার প্রতিবেশীরা এ ধরনের জঘন্য অপরাধের কঠিন শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।