কুমারখালীতে রাস্তার কাজে অনিয়মের অভিযোগ এনে কাজ বন্ধ করে দিলো এলাকাবাসী


দৈনিক প্রতিদিনের অপরাধ প্রকাশের সময় : মার্চ ১৮, ২০২০, ৮:০০ পূর্বাহ্ন / ২১৭
কুমারখালীতে রাস্তার কাজে অনিয়মের অভিযোগ এনে কাজ বন্ধ করে দিলো এলাকাবাসী

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার শিলাইদহ ইউনিয়নের জাহেদপুর পাকা রাস্তা হতে কোমরকান্দি পাকা রাস্তা পর্যন্ত (চেঃ০০-১৬০০ মিঃ) রাস্তার কাজে অনিয়মের অভিযোগ এনে কাজ বন্ধ করে দিলো এলাকাবাসী। গতকাল সরেজমিন গিয়ে দেখা যায় ”বৃহত্তর কুষ্টিয়া জেলা গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের “আওতায় জাহেদপুর পাকা রাস্তা হতে কোমরকান্দি পাকা রাস্তা পর্যন্ত ১ হাজার ৬০০ মিঃ কাজ গত ১৪/০৫/২০১৯ ইং তারিখে শুরু হয়ে ১০/১১/২০১৯ ইং তারিখে শেষ করার কথা। যার প্রাক্কলিত মূল্য ১ কোটি ১৪ লক্ষ ১৩ হাজার ৬০ টাকা এবং ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান হিসাবে নির্বাচিত হন কুষ্টিয়া -৭০০০, বি/২২৯ হাউজিং এস্টেট এর হুমায়ন এন্ড সন্স ট্রেডার্স। রাস্তার সাববেজের কাজ চলছে একটি খোয়া একটি বালি দেবার নিয়ম থাকলেও সঠিক ভাবে খোয়া বালু না দেয়া এবং খোয়ার মান নিম্নমানের অভিযোগ এনে কাজ বন্ধ করে দেন এলাকাবাসী। পরবর্তীতে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বরত ব্যক্তিবর্গ এসে সঠিক ভাবে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে পূনরায় কাজ আরম্ভ করেন। কাজে অনিয়মের বিষয়টি তুলে ধরে মুঠোফোনে এলজিইডির সাব এ্যাসিস্টেন্ট ইঞ্জিনিয়ার মোঃ রফিকুল ইসলামের সাথে কথা বললে তিনি জানান কাজে অনিয়ম করার কোন সুযোগ নেই কারন প্রথমে বেড টেষ্ট এবং সঠিকভাবে বালি ফিলিং করে কমপ্যাক্ট করার পর এটা কুমারখালী থেকে টেষ্ট করে রিপোর্ট দেবার পর সাববেজের কাজ শুরু হয় এবং সাববেজ ও ডাব্লিউবিএম এর কাজের টেষ্ট কুষ্টিয়া থেকে ফাইনাল রিপোর্ট দেবার পর কাজের মোট মুল্যর ৬০ ভাগ টাকা প্রদান করা হয়। পরবর্তীতে কার্পেটিং এর কাজ সমাপ্তির পর ফাইনাল বিল করা হয়। তিনি বলেন এখনো ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে কোন বিল দেয়া হয়নি কাজে কোন অনিয়ম পেলে তাদের পূনরায় সঠিক ভাবে কাজ করতে হবে। এবিষয়ে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের প্রোপাইটার কুষ্টিয়া জেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক ও কয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জিয়াউল হক স্বপনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করতে চাইলে ফোন রিসিভ করেননি।