নবী (স:) দাঁড়ি মোবারক পবিত্র কোরআনের পাতায় খুঁজছে মানুষ


দৈনিক প্রতিদিনের অপরাধ প্রকাশের সময় : মার্চ ৫, ২০২০, ৫:৪৭ পূর্বাহ্ন / ৬১৭
নবী (স:) দাঁড়ি মোবারক পবিত্র কোরআনের পাতায় খুঁজছে মানুষ
লংগদু উপজেলাতে করোনা ভাইরাসের মত ঈমান নষ্ট করার ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি রাত থেকে একটি কথা ভাইরাল হয়েছে পবিত্র কোরআনে মহানবি হযরত মোহাম্মদ (স:) এর দাঁড়ি,চুল, চোখের ভ্রু, পাওয়া যাচ্ছে।
 একথা শুনে সাধারণ  মুসলিম পরিবার গুলো পবিত্র কোরআনের মধ্যে তা খুঁজতে থাকে যা এখনো চলমান। এইরকম অনেকের সাথে কথা বলে জানা যায় এই চুল,দাঁড়ি যারা পাবে তা ধুয়ে পানি পাণ করলে করোনা ভাইরাস সহ নানা রোগ দূর হবে।
তাদের কাছে জানতে চাইলে যে তারা কোথায় থেকে তথ্য পেয়েছে কোরআনে চুল,দাঁড়ি পাওয়া যাচ্ছে। তারা বলছেন শহরে এক হুজুর স্বপ্নে দেখেছে কোরআনে চুল, দাঁড়ি,পাওয়া যাচ্ছে তারপর থেকে একে অপরের কাছে শুনতে পেয়ে আমরা খুঁজতে থাকি এবং অনেকেই পেয়েছে এবং ধুয়ে পানি পাণ করছে।
বিষয়টি সত্য মিথ্যা বা ইসলামী সামাধান কি?  জানার জন্য অত্র এলাকার সম্মানিত  ইমাম সাহেবগণের যোগাযোগ করলে তাঁরা বলেন, এটা মুসলিমদের ঈমান কে ধবংস করার জন্য একটি কুচক্রি মহল  কাজ করছে। কোরআনে চুল,চোখের ভ্রু, এসব পাওয়া যেতে পারে এটা স্বাভাবিক বিষয়, কারণ যখন কোরআন তেলোয়াত করে তখন এগুলা ঝড়ে পড়তে পারে।
এবিষয়ে বিষয়ে লংগদু উপজেলা ইমাম সমিতির সভাপতি গাঁথাছড়া বায়তুশ শরফ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আমিনুর রশিদ সাহেবের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, স্বপ্নটি যদিও সত্য হয় তার পরও তা কারও জন্য পালনীয় নয়,
কারণ নবী- রাসুল ছাড়া কোন ব্যাক্তির স্বপ্ন ইসলামি শরীয়াহতে আমলযোগ্য নয়।
 এ কথা কে বলেছেন, সেটারও কোন সঠিক তথ্য নেই। হতে পারে কোন ইহুদীর এজেন্ট মুসলমানদের মধ্যে একটি মিথ্যা কথা ছড়িয়ে দিয়ে মুসলানের ঈমান বা বিশ্বাসকে হাসাহাসির পণ্য বানানোর চক্রান্তে লিপ্ত রয়েছে।
 তিনি আরো বলেন সেটি কিভাবে ঈমান ধবংস করবে, তার পদ্ধতি হল  উপরোক্ত কথা শুনে কোন ব্যাক্তি যদি  বিশ্বাস করে প্রাপ্ত বা কাল্পনিক চুল ধুয়ে পানি পান করল, এতে তার রোগ ভাল হলোনা। তখন সে ব্যাক্তির ঈমান,  বিশ্বাস, আস্থা কোরআন শরীফ ও রাসুল (স.) থেকে চলে যাবে। সে অন্য কোন জটিল সমস্যার সময় কোরআন- সুন্নাহ বর্ণিত রাসুল স. অনুমোদিত   বৈধ কোন আমল করবেনা।
দেখা যাবে পরবর্তীতে সে কোন আলেমের ভাল কথাও আর বিশ্বাস করবে না। কারণ সে বলবে হুজুর রা মিথ্যা কথা বলে।
এই রকম ঈমান, বিশ্বাস ও আস্থা নষ্টকারী ও তাদের বানাওয়াট কথা থেকে বেঁচে থাকার জন্য সতর্ক হতে হবে।
রাসুল স. ইরশাদ করেন, কিয়ামতের পূর্বে কিছু মিথ্যাবাদী দাজ্জালের আবির্ভাব ঘটবে, তারা এমন এমন( ঈমান ধ্বংসকারী) আজগুবী কথা বলবে, যা ইতিপূর্বে তুমিও শুননি, তোমার পূর্ব পুরুষেরাও শুনেন নি, তোমরা তাদের থেকে বেঁচে থাকবে, তাদেরকে তোমাদের কাছে আসতে দিবেন না। (সহিহ মুসলিম)
 আমাদেরকে নিত্য নতুন ঈমান নষ্টকারী ফিতনা ও কথা হতে বেচে থাকার এবং সকলকে সাবধান হওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন লংগদু উপজেলা ইমাম সমিতির সভাপতি গাঁথাছড়া বায়তুশ শরফ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আমিনুর রশিদ সাহেব।